এবার ১৩ বছরের কম বয়সী শিশুরা ব্যবহার করতে পারবে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকের নতুন একটি অ্যাপ। গতকাল সোমবার ১৩ বছরের কম বয়সীদের জন্য ম্যাসেঞ্জারের একটি বিশেষ সংস্করণ চালু করেছে ফেসবুক। ফেসবুকের নীতিমালা অনুযায়ী, ১৩ বছর বয়স না হলে অ্যাকাউন্ট খোলা যায় না। তাই ওই বয়সীদের কথা মাথায় রেখে অ্যাপটি তৈরি করা হয়েছে।

বিবিসি অনলাইনের খবরে বলা হয়েছে, তবে আপাতত যুক্তরাষ্ট্রে ব্যবহৃত অ্যাপলের আইফোনেই মিলবে এই সুবিধা। ‘ম্যাসেঞ্জার কিডস’ নামের এই অ্যাপে শিশুদের নিরাপত্তার কথা বিবেচনা রাখা হয়েছে গুরুত্বপূর্ণ কিছু ফিচার। অ্যাপটিতে অ্যাকাউন্ট খুলতে চাইলে প্রয়োজন হবে অভিভাবকের অনুমোদন। এ ছাড়া ম্যাসেঞ্জারে কোনো বন্ধুকে যুক্ত করতে চাইলেও একই প্রক্রিয়ার মধ্য দিয়ে যেতে হবে।

‘ম্যাসেঞ্জার কিডস’–এর প্রোডাক্ট ম্যানেজার লরেন চেং বলেন, ‘বাবা-মায়েরা এখন সন্তানদের ট্যাব ও স্মার্টফোন ব্যবহারের অনুমতি দেন। তবে কীভাবে তারা এটা ব্যবহার করছে এবং কোন অ্যাপসগুলো তাদের জন্য যথাযথ—এ ব্যাপারে একটা প্রশ্ন থেকেই যায়। তাই যখন কয়েকজন বাবা-মায়ের সঙ্গে কথা বলে আমরা জানতে পারলাম শিশুদের জন্য এমন অ্যাপ প্রয়োজন, তখন আমরা এটার কথা ভাবলাম। এটা ওই বয়সী বাচ্চাদের জন্য বিশেষভাবে তৈরি। এ ব্যাপারে বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ নেওয়া হয়েছে।’

যুক্তরাষ্ট্রে ৬ থেকে ১২ বছর বয়সী ৯৩ শতাংশ শিশু স্মার্টফোন অথবা ট্যাব ব্যবহারের সুযোগ পায়। এদের মধ্যে দুই-তৃতীয়াংশ শিশুর নিজস্ব ফোনই রয়েছে। এই শিশুরা ইচ্ছা করলেই ফেসবুক ব্যবহার করতে পারে। অথচ এটা তাদের জন্য নিরাপদ না–ও হতে পারে। এই চিন্তা থেকেই শিশুদের এই অ্যাপ আনল ফেসবুক। শিশুদের জন্য ম্যাসেঞ্জারটি টেকনোলজির ইতিবাচক, নিরাপদ, সঠিক দিকগুলো তুলে ধরবে।

Share.

About Author