মাইক্রোসফট তাদের ক্লাউড সংরক্ষণের সবচেয়ে বড় সেবা ‘অজোরে স্ট্যাক’-এর উন্মোচন করেছে গত সোমবার। অজোরে স্ট্যাকের মাধ্যমে ব্যবহারকারী তাঁর নিজের ক্লাউড সংরক্ষণশালা তৈরি করে নিতে পারবেন।

ক্লাউড সেবা দেওয়া নিয়ে কয়েক বছর ধরে অনেকটা যুদ্ধই চলছে শীর্ষ প্রযুক্তিপ্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে। গুগল, আমাজন ও মাইক্রোসফট বরাবরই এই যুদ্ধে বিপরীত প্রান্তে অবস্থান করে। এই ব্যবসায়িক প্রতিদ্বন্দ্বিতার জের ধরে ২০১৫ সালের মে মাসে একটি উন্নত হাতিয়ারের কথা উল্লেখ করেছিল মাইক্রোসফট। তার দুই বছরের বেশি সময় পর অজোরে স্ট্যাকের ঘোষণা দিল মাইক্রোসফট। উচ্চমানের এই ক্লাউড সংরক্ষণ সেবায় ইচ্ছানুযায়ী তথ্য সংরক্ষণ করা যাবে মাইক্রোসফটের সুপারকম্পিউটার সংরক্ষণশালায়। অর্থাৎ এর মাধ্যমে ব্যবহারকারীর ডিভাইসকে সরাসরি মাইক্রোসফটের মৌলিক ক্লাউডে যুক্ত করা যাবে। এর জন্য আর ক্লাউড স্টোরেজ স্পেস নির্দিষ্ট থাকবে না। এ ছাড়া মাসিক নির্দিষ্ট ফি দেওয়ার বদলে যতটুকু তথ্য সংরক্ষণ করা হবে, ততটুকুর জন্যই অর্থ দিতে হবে।

মাইক্রোসফটের নতুন ক্লাউড পদ্ধতি কতটা উচ্চমানের সেটি বোঝাতে একজন প্রযুক্তি বিশ্লেষক বলেন, আমাজন ও গুগল বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে অংশীদার ভিত্তিত্বে বিনিয়োগ করে যেসব উন্নত ক্লাউড সংরক্ষণাগার তৈরি করছে, সেসব মাইক্রোসফটের অজোরে স্ট্যাকের কাছাকাছি যেতে পারেনি।

সূত্র: বিজনেস ইনসাইডার

Share.

About Author