হয়তো অ্যাপলের নতুন আইফোনকে টেক্কা দেওয়ার স্বপ্ন দেখেছিল স্যামসাং। তাই তো গ্যালাক্সি এস৮ তৈরি করার সময় এর কোডনেম ছিল ‘ড্রিম’। তবে স্যামসাংয়ের যতই চেষ্টা থাকুক, গ্যালাক্সি এস ও নোট সিরিজ দিয়ে আইফোনের মতো গ্রাহকের মনে জায়গা করতে পারেনি। তবে স্যামসাংয়ের ঝুলিতে এমন কিছু আছে, যা অ্যাপলের কাছেও নেই। একেবারে নতুন এক স্মার্টফোন। এর নাম হতে পারে গ্যালাক্সি এক্স।

‘এক্স’ নামটি শুনে যাঁরা ভাবছেন, স্যামসাং হয়তো অ্যাপলের আইফোন এক্সের (আইফোন টেন) নকল করছে, তাঁদের ধারণা ঠিক নয়। আইফোন এক্স বাজারে আসার আগে থেকেই স্যামসাংয়ের নতুন ওই স্মার্টফোন নিয়ে গুঞ্জন রয়েছে।

গ্যালাক্সি এস হতে পারে স্যামসাংয়ের প্রথম নমনীয় প্রযুক্তির বা ভাঁজ করে রাখা যায়—এমন স্মার্টফোন। কিন্তু এ স্মার্টফোন তৈরির জটিলতার কারণে শুরুতে হয়তো সীমিত আকারে তা বাজারে আসবে।

প্রযুক্তিবিষয়ক বিভিন্ন প্রদর্শনীতে ভাঁজ করার সুবিধাযুক্ত মোবাইল পণ্য দেখিয়েছে স্যামসাং। কিন্তু এ ধরনের স্মার্টফোন বাজারে ছাড়ার জন্য কখনো প্রস্তুত ছিল না স্যামসাং। গ্যালাক্সি এক্স হতে যাচ্ছে স্যামসাংয়ের প্রথম ভাঁজ করার সুবিধাযুক্ত স্মার্টফোন।

স্যামসাংয়ের পক্ষ থেকেও এ ধরনের ফোন তৈরির বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়েছে। স্যামসাংয়ের ওয়েবসাইটের একটি পেজে ‘এসএম-জি ৮৮৮ এন০’ স্মার্টফোনটি দেখানো হয়। ডাচ ভাষার ওয়েবসাইট মোবাইল কোপেন ওই হ্যান্ডসেটটির তথ্য প্রথম দেখতে পায়।

স্যামসাংয়ের পক্ষ থেকে অবশ্য এসএম-জি ৮৮৮ সিরিজের ফোনের বিস্তারিত কিছু বলা হয়। এর মধ্যে এ মডেলটি বিভিন্ন নিয়ন্ত্রক প্রতিষ্ঠান যেমন ব্লুটুথ এসআইজি, ওয়াই-ফাই অ্যালায়েন্স, দক্ষিণ কোরিয়ার রেডিও গবেষণা কেন্দ্র থেকে অনুমোদন পেয়েছে। অবশ্য ফোনটি সম্পর্কে এসব অনুমোদন বা সনদ পাওয়ার খবর ছাড়া কোনো তথ্য ফাঁস হতে দেখা যায়নি। অনেক সময় স্যামসাং পণ্য বাজারে আসার আগে তার তথ্য ফাঁস হয়। তবে এ ক্ষেত্রে কঠোর গোপনীয়তা রক্ষা করা হচ্ছে।

ভাঁজ করা স্মার্টফোনের তৈরিতে কয়েকটি প্রতিষ্ঠান কাজ করছে। তবে এ ক্ষেত্রে বাজারে এগিয়ে যাওয়ার লক্ষ্যে কাজ শুরু করেছে দক্ষিণ কোরিয়ার প্রতিষ্ঠানটি। তথ্যসূত্র: বিজিআর।

Share.

About Author