মাইক্রোসফট অফিস বা এমএস অফিস সফটওয়্যারটির নতুন সংস্করণ শিগগিরই বাজারে ছাড়বে বিশ্বের বৃহত্তম সফটওয়্যার নির্মাতা প্রতিষ্ঠান মাইক্রোসফট। গতকাল মঙ্গলবার মাইক্রোসফট কর্তৃপক্ষ অফিস ২০১৯ সংস্করণটির ঘোষণা দিয়ে বলেছে, ২০১৮ সালে মাঝামাঝি সময়ে এ সফটওয়্যারটি পাওয়া যাবে।

মাইক্রোসফটের ক্লাউডভিত্তিক অফিস স্যুট ‘অফিস ৩৬৫ ’-এর গ্রাহক ধীরে ধীরে বাড়ছে। সবাই অবশ্য ক্লাউডভিত্তিক সেবা চান না। যাঁরা অ্যাপ ও সেবা ক্লাউডে চান না, তাঁদের জন্য অফিস ২০১৯ সংস্করণটি আনবে মাইক্রোসফট। এতে ওয়ার্ড, এক্সেল, পাওয়ারপয়েন্ট ও আউটলুকের পাশাপাশি সার্ভার সংস্করণ মাইক্রোসফট এক্সচেঞ্জ, শেয়ারপয়েন্ট ও স্কাইপ ফর বিজনেস যুক্ত থাকবে।

যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডার অরল্যান্ডোতে অনুষ্ঠিত মাইক্রোসফট ইগনাইট সম্মেলনে মাইক্রোসফট কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, অফিস ২০১৯ সংস্করণে আরও তথ্যপ্রযুক্তি ফিচার, ব্যবহারযোগ্যতা বাড়াতে সার্ভার হালনাগাদ, কণ্ঠস্বর প্রযুক্তি ও নিরাপত্তার বিষয়গুলো যুক্ত হয়েছে।

এক্সেল ব্যবহারকারীর হালনাগাদ ফর্মুলা ও চার্ট, পাওয়ার পয়েন্ট ব্যবহারকারীরা অ্যানিমেশন ফিচার পাবেন। আগামী বছরের মাঝামাঝি সময়ে নতুন সফটওয়্যারের প্রিভিউ সংস্করণ পাওয়া যাবে বলে ঘোষণা দিয়েছে মাইক্রোসফট।

ক্লাউড প্রযুক্তির ওপর মাইক্রোসফট বেশি গুরুত্ব দিলেও এ অফিস স্যুট ব্যবসায়ীদের কাজে লাগবে বলেই মনে করছে প্রতিষ্ঠানটি। ২০১৫ সালে অফিস স্যুটটির সর্বশেষ বড় হালনাগাদ ‘এমএস অফিস ২০১৬’ উন্মুক্ত করেছিল মাইক্রোসফট। তথ্যসূত্র: সিএনএন।

Share.

About Author