আগামী নভেম্বর মাসে আইফোন টেন বাজারে ছাড়ছে মার্কিন প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান অ্যাপল। ৯৯৯ মার্কিন ডলার মূল্যের এই ফ্ল্যাগশিপ ফোনের জন্য ২৭ অক্টোবর থেকে আগাম ফরমাশ নিতে শুরু করবে প্রতিষ্ঠানটি। গত ১২ সেপ্টেম্বর আইফোন ৮ ও ৮ প্লাসের পাশাপাশি আইফোন টেন সংস্করণটির ঘোষণা দেয় অ্যাপল।
অ্যাপলপ্রেমীরা নতুন এ ফোনের অপেক্ষায় আছেন। আইফোন টেনের বেজেলবিহীন ডিসপ্লে, ফেস আইডি ও অগমেন্টেড রিয়েলিটি ফিচার নিয়ে মানুষের আগ্রহ। অবশ্য বাজার বিশ্লেষকেরা বলছেন, যাঁরা ফোনের পেছনে হাজার ডলার খরচ করবেন, তাঁরা নিশ্চয়ই কিছুটা চিন্তাভাবনা করবেন। বাজারে আইফোন টেনের বিকল্প রয়েছে। দামও কিছুটা কম। জেনে নিন আইফোন টেনের কয়েকটি বিকল্প সম্পর্কে:

গ্যালাক্সি নোট ৮
নতুন আইফোনকে টেক্কা দিতে বিশ্বের শীর্ষ স্মার্টফোন নির্মাতা স্যামসাং বাজারে ছেড়েছে নোট ৮ নামের স্মার্টফোনটি। এটি স্যামসাংয়ের বাজারে ছাড়া স্মার্টফোনগুলোর মধ্যে সবচেয়ে দামি ফোন। দাম ৯৩০ মার্কিন ডলার। ৬ দশমিক ৩ ইঞ্চি মাপের কোয়াড এইচডি প্লাস (২৯৬০ বাই ১৪৪০ পিক্সেল) সুপার অ্যামোলেড ইনফিনিটি ডিসপ্লেযুক্ত স্মার্টফোনটি গ্যালাক্সি এস ৮ প্লাসের চেয়ে আকারে বড়। স্মার্টফোনটিতে কোয়ালকমের তৈরি অক্টাকোর স্ন্যাপড্রাগন ৮৩৫ প্রসেসর ব্যবহৃত হয়েছে। ফোনটিতে রয়েছে ৬ জিবি এলপিডিডিআর ৪ র‍্যাম।
নোট ৮ স্মার্টফোনটির বিশেষ ফিচার হিসেবে ডুয়াল ক্যামেরা সেটআপ ফিচারটিকে তুলে ধরছে স্যামসাং। প্রথমবারের মতো পেছনের দিকে দুটি ১২ মেগাপিক্সেল সেন্সর ব্যবহৃত হয়েছে। এর ব্যাটারি ৩ হাজার ৩০০ মিলি-অ্যাম্পিয়ার। ১০ ন্যানোমিটার প্রযুক্তির প্রসেসরে থাকায় এতে কম শক্তি খরচ হয়। ফোন গরম হয় না। এতে তারহীন দ্রুত চার্জিং প্রযুক্তি যুক্ত হয়েছে। নোট ৮ স্মার্টফোনটির উল্লেখযোগ্য ফিচার হচ্ছে এর উন্নত এস পেন।

নকিয়া ৮
নকিয়া-৮ প্রিমিয়াম’ হ্যান্ডসেট। নকিয়া ব্র্যান্ডের এ ফোন তৈরি করেছে ফিনল্যান্ডের এইচএমডি গ্লোবাল। ‘বোথি’ ভিডিওর ধারণাকে জনপ্রিয় করার উদ্দেশ্য এই ফোন তৈরি করেছে নকিয়া। এই ফোনটির সামনের ও পেছনের উভয় ক্যামেরা দিয়েই একসঙ্গে ভিডিও করা যাবে। এই ভিডিও করার সময় ফোনের ডিসপ্লের পাশাপাশি দুটি ভাগের একটিতে সামনের ক্যামেরায় ধারণ করবে ভিডিওকারীর ভিডিও এবং পেছনের ক্যামেরা ধারণ করবে বিষয়বস্তুর ভিডিও। এই ভিডিও ইউটিউবসহ অন্য মাধ্যমগুলোতে সরাসরি সম্প্রচার করা যাবে। অ্যালুমিনিয়ামের তৈরি কাঠামো এই স্মার্টফোনের দাম পড়বে প্রায় ৬০০ ইউরো। অ্যান্ড্রয়েডচালিত এই স্মার্টফোন দিয়ে ৪কে রেজল্যুশন ভিডিও ধারণ করা যাবে। এর সামনে ও পেছনে রয়েছে জার্মানির জেইসের তৈরি ১৩ মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা। নকিয়ার ব্র্যান্ড লাইসেন্স কিনে নেওয়া এইচএমডি গ্লোবাল দাবি করেছে, সামনে ও পেছনের ক্যামেরা দিয়ে একই সঙ্গে ভিডিও ধারণ করার ফিচারসংবলিত ফোন বিশ্বে এই প্রথম। এইচএমডি গ্লোবাল এই দাবি করলেও অন্য কিছু হ্যান্ডসেট রয়েছে, যেগুলোতে দুই পাশের ক্যামেরা দিয়ে একসঙ্গে ভিডিও ধারণ করার ফিচার রয়েছে। তবে ফেসবুক ও ইউটিউবে ওই ভিডিও ফুটেজে সরাসরি সম্প্রচার করার সুবিধাসংবলিত ফোন এটাই প্রথম।

পিক্সেল টু
অ্যাপলকে ঠেকাতে পিক্সেল ব্র্যান্ডের নতুন স্মার্টফোন এনেছে গুগল। গুগল পিক্সেল টু স্মার্টফোনটির (৬৪ জিবি) দাম শুরু হবে ৬৪৯ মার্কিন ডলার থেকে। পিক্সেল টু এক্সএল স্মার্টফোনটির দাম শুরু হবে ৮৪৯ মার্কিন ডলার থেকে। পিক্সেল টু স্মার্টফোনটি প্রথম প্রজন্মের পিক্সেল ফোনের মতো হলেও পিক্সেল টু এক্সএলের নকশায় উল্লেখযোগ্য কিছু পরিবর্তন। দুটি মডেলেই অ্যান্ড্রয়েড ৮.০ ওরিও সংস্করণ থাকবে। এতে অবশ্য ৩.৫ মিলিমিটার হেডফোন জ্যাক থাকছে না। ফোন দুটি আইপি ৬৭ রেটিংয়ের। অর্থাৎ, পানি ও ধুলা প্রতিরোধী। সাদা, কালো ও নীল—এ তিনটি রঙে বাজারে আসবে পিক্সেল ফোন। এতে ফিচার হিসেবে এসেছে অলওয়েজ অন ডিসপ্লে ও স্বয়ংক্রিয় শব্দ শনাক্তকরণ প্রযুক্তি। সার্চ বার নিচের দিকে চলে আসায় হোম স্ক্রিন অদৃশ্য হয়েছে। ওপরের দিকে ব্যবহারকারী ‘অ্যাট আ গ্লান্স’ ফিচারটি পাবেন। এতে ব্যবহারকারীর কাজের নানা সুবিধা হবে। নতুন পিক্সেল ফোনে ‘অ্যাকটিভ এজ’ নামের বিশেষ সুবিধা যুক্ত হয়েছে। তাইওয়ানের প্রযুক্তিপণ্য নির্মাতা প্রতিষ্ঠান এইচটিসির তৈরি করা পিক্সেল টু স্মার্টফোনে থাকছে পাঁচ ইঞ্চি মাপের ফুল এইচডি (১০৮০ বাই ১৯২০ পিক্সেল) অ্যামোলেড টু পয়েন্ট ফাইভ ডি ডিসপ্লে। এতে সুরক্ষা হিসেবে যুক্ত হয়েছে কর্নিং গরিলা গ্লাস ৫। অক্টাকোর কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন ৮৩৫ প্রসেসর চালিত ফোনটিতে চার জিবি এলপিডিডিআর ফোর এক্স র‍্যাম সমর্থন করে। ফোনটি ৬৪ জিবি ও ১২৮ জিবি মডেলে বাজারে আসবে। এর পেছনে ১২ দশমিক ২ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা রয়েছ, যার অ্যাপারচার এফ/ ১.৮ এবং সামনে রয়েছে ৮ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা। এর অ্যাপারচার এফ/ ২.৪। ফোনটিতে ফোরকে মানের ভিডিও ধারণ করা যায়। এর ব্যাটারি ২ হাজার ৭০০ মিলি–অ্যাম্পিয়ারের। এতে ১৫ মিনিটের চার্জে ৭ ঘণ্টা পর্যন্ত ব্যাটারি ব্যাকআপ পাওয়া যাবে। পিক্সেল টু এক্সএল ফোনটি তৈরি করেছে এলজি। এর বৈশিষ্ট্যের সঙ্গে পিক্সেল টুর অনেক মিল রয়েছে। তবে এতে ব্যবহৃত হয়েছ ৬ ইঞ্চি কিউএইচডি প্লাস (২৮৮০ বাই ১৪৪০ পিক্সেল) পিওএলইডি ডিসপ্লে। এর ব্যাটারি ৩ হাজার ৫২০ মিলি–অ্যাম্পিয়ারের। দুটি ফোনই অগমেন্টেড রিয়্যালিটি সমর্থন করবে। প্রথমবারের মতো গুগল লেন্স ফাংশনালিটি যুক্ত হয়েছে এতে।

মেট ১০
১৬ অক্টোবর হুয়াওয়ে মেট ১০ ও মেট ১০ প্রো নামের দুটি স্মার্টফোনের ঘোষণা দিয়েছে। মেট ১০ স্মার্টফোনটিতে ৫ দশমিক ৯ ইঞ্চি এলসিডি ও মেট ১০ প্রোতে রয়েছে ছয় ইঞ্চি মাপের ওএলইডি ডিসপ্লে। দুটি ফোনেই অত্যন্ত পাতলা বেজেল ব্যবহৃত হয়েছে। ফোন দুটিতে ভিডিও দেখার ক্ষেত্রে বিশেষ সুবিধা হবে। যুক্তরাষ্ট্রের বাজারে এর দাম হতে পারে ৭০০ ও ৮৬০ মার্কিন ডলার। হুয়াওয়ের মেট ১০ ফোনের অন্যান্য সুবিধার মধ্যে আছে ডুয়াল ১২ মেগাপিক্সেল কালার ক্যামেরা ও ২০ মেগাপিক্সেল মনোক্রোম ক্যামেরা। এর সামনে ৮ মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা ও চার হাজার মিলি–অ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি আছে। এতে ওয়্যারলেস চার্জিং সুবিধা না থাকলেও দ্রুত চার্জ করার সুবিধা আছে। মেট ১০ স্মার্টফোনে চার জিবি র‍্যাম ৬৪ জিবি স্টোরেজ থাকছে। মেট ১০ প্রো মডেলটি পানিরোধী। এ ফোনে কিরিন ৯৭০ চিপসেট ব্যবহার করেছে হুয়াওয়ে যাকে তারা বলছে এনপিইউ বা নিউরাল প্রসেসিং ইউনিট। এটি কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা বা ডিপ লার্নিং–সংক্রান্ত কাজে সহযোগিতা করবে। অ্যাপলের আইফোন ৮ এ ব্যবহৃত বায়োনিক চিপের সদৃশ এটি।


রেজার ফোন

হার্ডকোর গেমারদের জন্য এ বছরেই নতুন স্মার্টফোন বাজারে আনার খবর নিশ্চিত করেছে গেমিং ল্যাপটপ নির্মাতা সম্প্রতি প্রতিষ্ঠানটির সহপ্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মিন-লিয়াং টান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। দীর্ঘদিন ধরেই রেজারের গেমিং স্মার্টফোন ঘিরে গুঞ্জন ছিল। রেজারের সংশ্লিষ্ট সূত্রের বরাত দিয়ে ব্লুমবার্গের প্রতিবেদনে দাবি করা হয়েছিল, গেমভক্তদের কথা মাথায় রেখে বিশেষ স্মার্টফোন তৈরির কাজ চালাচ্ছে রেজার। নতুন স্মার্টফোন ঘোষণার আগেভাগে জিএফএক্সবেঞ্চ ওয়েবসাইটে রেজারের অ্যান্ড্রয়েডচালিত ফোনটির তথ্য প্রকাশ করা হয়েছে। ওই তথ্য অনুযায়ী, রেজার ফোনে থাকবে ৮ জিবি র‍্যাম ও উন্নত নানা ফিচার। ফোন রাডার নামের প্রযুক্তিবিষয়ক ওয়েবসাইটের তথ্য অনুযায়ী, রেজার ফোনে থাকবে ৫ দশমিক ৭ ইঞ্চি মাপের কিউএইচডি (১৪৪০ বাই ২৫৬০ পিক্সেল) ডিসপ্লে। এতে কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন ৮৩৫ চিপসেট ব্যবহৃত হবে। ফোনটিতে ৬৪ জিবি বিল্টইন স্টোরেজ থাকবে। ফোনটির পেছনে ১২ মেগাপিক্সেল ও সামনে ৮ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা থাকবে।

Share.

About Author