প্রিন্ট সংস্করণ

ট্যাবলেট কম্পিউটার আইপ্যাড বাজারে ছাড়ার পর বেশ সাড়া পেয়েছিল অ্যাপল কম্পিউটার ইনকরপোরেটেড। পরবর্তী সময়ে এই আইপ্যাডের বিভিন্ন সংস্করণও বাজারে এনেছে তারা। এর নানা সুবিধায় মুগ্ধ হয়ে আইপ্যাড কেনার সাধ জাগেনি এমন প্রযুক্তিপণ্য ব্যবহারকারী খুঁজে পাওয়া দুষ্কর। তবে কোন সংস্করণের আইপ্যাড কিনবেন, তা নিয়ে ক্রেতারা দ্বিধাদ্বন্দ্বে পড়েন। এ বছর অ্যাপলের নতুন সংস্করণের চারটি আইপ্যাড বাজারে এসেছে। প্রচলিত আইপ্যাডের সঙ্গে এবার যোগ হয়েছে নতুন সাড়ে ১০ ইঞ্চি পর্দার ‘আইপ্যাড প্রো’। কার জন্য কোন আইপ্যাডটি জুতসই হবে তা তুলে ধরা হয়েছে এখানে—

আইপ্যাড (৯.৭ ইঞ্চি)
আইপ্যাড হলো অ্যাপলের প্রথম ট্যাবলেট কম্পিউটার। এই আইপ্যাডের দাম কম তবে আগের চেয়েও বেশি শক্তিশালী। ৯ দশমিক ৭ ইঞ্চি পর্দার এই আইপ্যাডের রেজ্যুলেশন ২০৪৮×x ১৫৩৬ হলেও এর উজ্জ্বল আলো চোখে পড়ার মতো। এই আইপ্যাডে থাকছে ১২৮ গিগাবাইটের এসএসডি কার্ড ধারণক্ষমতা। যে কেউ-ই এটি কিনতে পারেন। তবে ওয়েবসাইট দেখা, ই-মেইল করা বা গেম খেলার মতো নৈমিত্তিক কাজে এটি ভালো। এর দাম পড়বে ৩২৯ ডলার।

আইপ্যাড প্রো (১২.৯ ইঞ্চি)
প্রায় ১৩ ইঞ্চি পর্দার আইপ্যাড প্রো একটি শক্তিশালী স্মার্টযন্ত্র। ৬৪ গিগাবাইট থেকে শুরু করে ৫১২ গিগাবাইট ধারণক্ষমতার আইপ্যাড প্রোর প্রতি ইঞ্চি পর্দায় রয়েছে ২৬৪ পিক্সেল। এ১০ ফিউশন চিপের সঙ্গে এম ১০ কোপ্রসেসরের আইপ্যাড প্রোতে ব্যবহার করা যাবে অ্যাপলের ম্যাজিক পেনসিল। আইপ্যাড প্রোর ২০১৭ সংস্করণে আগের চেয়ে উন্নত মেগাপিক্সেলের ক্যামেরার সঙ্গে থাকছে দ্রুত রিফ্রেশ হওয়ার সুবিধা। ৭৯৯ মার্কিন ডলার মূল্যের আইপ্যাড প্রো কিনতে পারেন চিত্রশিল্পী হলে। এ ছাড়া যাঁরা•বড় পর্দার ডিভাইস নিয়ে চলাফেরা করতে স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করেন তাঁরাও নিতে পারেন।

আইপ্যাড প্রো (১০.৫ ইঞ্চি)
অনেক আইপ্যাড ভক্তই আইপ্যাড ও আইপ্যাড প্রোর মাঝামাঝি পর্দার দাবি করে আসছেন বহুদিন ধরেই। ভক্তদের অনুরোধে সাড়া দিয়েই সাড়ে ১০ ইঞ্চি পর্দার আইপ্যাড প্রো বাজারে এনেছে অ্যাপল। আইপ্যাড প্রোর মতোই শক্তিশালী ছোট পর্দার এই আইপ্যাড প্রোটি অনেকেই কিনে থাকবেন শুধু পর্দা ছোট হওয়ায়। ৬৪৯ মার্কিন ডলারের আইপ্যাড প্রো কিনতে পারেন ছোট পর্দার সর্বোচ্চ কর্মক্ষমতার জন্য। চিত্রশিল্পীরাও এটি কিনতে পারেন।

আইপ্যাড মিনি ৪ (৭.৯ ইঞ্চি)
ছোট পর্দার জন্য এখনো জনপ্রিয় সবচেয়ে পুরোনো সংস্করণের আইপ্যাড মিনি। ৭ দশমিক ৯ ইঞ্চি পর্দার এই আইপ্যাডের কর্মদক্ষতা এখনো যেকোনো ট্যাবলেটের চেয়ে অনেক বেশি। আইপ্যাড মিনির নতুন সংস্করণে দ্রুতগতির এ৮ প্রসেসর ব্যবহৃত হয়েছে। আইপ্যাড মিনির প্রতি ইঞ্চি পর্দায় রয়েছে ৩২৬ পিক্সেল। এম ৮ মোশন কো-প্রসেসরের আইপ্যাড মিনি ৪ ক্যামেরার সঙ্গে রয়েছে ৬৪ বিট প্রসেসিং সক্ষমতা, উন্নত ওয়াই-ফাই, এলটিই অ্যান্টেনা। যাঁরা খুব বেশি ঘুরতে যান তাঁরা ৩৯৯ মার্কিন ডলারে কিনতে পারেন আইপ্যাড মিনি ৪। যাঁরা মুঠোফোনের চেয়ে তুলনামূলক বড় পর্দায় নেট ব্রাউজিং করতে চান, তাঁদের জন্য এই অ্যাইপ্যাড।

Share.

About Author